অ্যাথলেটিক্সখেলাধুলা

‘অলিম্পিক গেমস পেছানোয় আমার সুবিধা হয়েছে’

স্পোর্টস ডেস্ক: ২২ বছর বয়সী মরক্কান জুডোকা আজিজা চাকির। অলিম্পিকে অংশ নেয়াই যার স্বপ্ন। করোনার কারণে টোকিও অলিম্পিক পিছিয়ে যাওয়ায় অনুশীলনের পর্যাপ্ত সময় পেয়েছেন এই জুডো খেলোয়াড়। তাই করোনার মধ্যেও কখনো নিজের বাসার ছাদে, কখনো জিমে আবার কখনো বা সাগর পাড়ে কোচকে সঙ্গে নিয়ে অনুশীলন করে প্রস্তুত হচ্ছেন অলিম্পিকের জন্য। টোকিও অলিম্পিকে ৪৮ কেজি ওজন শ্রেণী জুডোতে লড়বেন আজিজা।
মরক্কোর এক সাধারণ পরিবারে জন্ম আজিজা চাকিরের। ছোটবেলা থেকেই জুডো খেলতে ভালোবাসেন তিনি। ধীরে ধীরে জুডোর সঙ্গে আরো বেশি সখ্যতা গড়ে ওঠে ২২ বছর বয়সী এই জুডোকার। তবে, এখন শুধু আর শখ নয়, জুডো খেলা ঘিরেই যত স্বপ্ন তার। স্বপ্ন দেখেন অলিম্পিকে অংশ নেয়ার। সেভাবেই প্রস্তুত করছেন নিজেকে। যদিও করোনার কারণে কিছুটা হলেও ব্যাঘাত ঘটেছে অনুশীলনে। কখনো ছাদে, কখনো জিমে আবার কখনো বা সমুদ্র সৈকতে গিয়ে অনুশীলন করছেন এই জুডো খেলোয়াড়।
মরক্কো জুডো খেলোয়াড় আজিজা চাকির বলেন, ‘করোনার কারণে আগের মত আমরা স্বাভাবিক অনুশীলন করতে পারিনা। আমরা বনে অথবা সাগর পাড়ে গিয়ে অনুশীলন করি। কোচও সঙ্গে যায়। সত্যি কথা বলতে এখন আরো ভালো সময় পাচ্ছি প্রস্তুতির জন্য।’
করোনা মহামারীর কারণে পিছিয়েছে টোকিও অলিম্পিক। এক বছর পিছিয়ে ২০২১ এ টোকিওতে বসবে এ আসর। সেখানে ৪৮ কেজি ওজন শ্রেণী জুডো খেলায় অংশ নেবেন আজিজা। অলিম্পিক পেছানোতে প্রস্তুতির জন্য আরো সময় পাবেন বলে মনে করেন এই জুডোকা।
মরক্কো জুডো খেলোয়াড় আজিজা চাকির বলেন, ”অলিম্পিক গেমস পিছিয়ে যাওয়ায় আমার জন্য সুবিধা হয়েছে। আমি আরো বেশি প্রস্তুতির সময় পাবো। অলিম্পিকে অংশ নেয়া আমার স্বপ্ন। চেষ্টা করবো আমার ইভেন্টে পদক জিততে।’
অনুশীলনে সব সময় কোচকে সঙ্গে পাচ্ছেন আজিজা। শুধু শারিরীকভাবে নয়, মানষিকভাবেও আজিজাকে প্রস্তুত করছেন কোচ।
কোচ আইয়ূব সেহিতা বলেন, ‘অনেক সময় আজিজা হতাশ হয়ে পড়ে। ও ভাবে পদক জেতা ওর জন্য কঠিন। আমি তখন ওকে বোঝাই। ধৈর্য্য ধরতে বলি। কারণ আমি জানি, চেষ্টা করলে একদিন সফলতা আসবেই। সেভাবেই ওকে প্রস্তুতিতে সাহায্য করে যাচ্ছি।’
২৫ জুন থেকে মরক্কোয় স্থগিত হওয়া সব খেলা আবারো শুরু হয়েছে।

আরকে

আরো দেখুন

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Check Also
Close
Back to top button
Close